1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : News 52 Bangla : Nurul Huda News 52 Bangla
মঙ্গলবার, ০৯ অগাস্ট ২০২২, ১১:৪৯ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ সংবাদ :
আখাউড়ায় ৬ লক্ষ টাকা সহ হুন্ডি ব্যবসায়ী আটক কাপ্তাইয়ে ইমাম-মোয়াজ্জিন কল্যাণ ট্রাস্টের উপজেলা পর্যায়ে অনুদান বিতরণ বঙ্গমাতার ৯২ তম জন্মবার্ষিকীতে কাপ্তাইয়ে আলোচনা সভা ও সেলাই মেশিন বিতরণ কাপ্তাই উচচ বিদ্যালয়ের শিক্ষক জসিম উদ্দিন আর নেই পতেঙ্গায় ইজিবাইক সংগ্রাম পরিষদের বিটবাণিজ্যের চাঁদাবাজদের বিরুদ্ধে সমাবেশে, পুলিশের বাঁধা আখাউড়ায় ১০ ই আগষ্ট কেল্লা শাহ বাবার পবিত্র উরশ মোবারক কাউখালী উপজেলা বিএনপি’র উদ্যোগে নিহতদের স্মরণে শোক সভা ও দোয়া মাহফিল টুঙ্গিপাড়ায় বিএফইউজে’র নেতৃবৃন্দের সাথে সাংবাদিক ইউনিয়ন কুষ্টিয়ার বৈঠক ডুমুরিয়ায় বার্ষিক ভূমিহীন সমাবেশ অনুষ্ঠিত কুষ্টিয়ায় দুই সাংবাদিকের উপর সন্ত্রাসী হামলা

অতি বৃষ্টির কারণে চা উৎপাদন বিঘ্নিত

প্রতিবেদকের নাম :
  • আপডেটের সময় : শুক্রবার, ১৯ জানুয়ারী, ২০১৮

সাধারণত কম বৃষ্টি বা খরার কারণে সিলেটে চা উৎপাদন ব্যাহত হয়ে থাকে। এবার চা-বাগানগুলোর ভিন্ন চিত্র। এই সংবেদনশীল পণ্যটির উত্পাদনে বিরূপ প্রভাব ফেলছে অতিবৃষ্টি। জলবায়ুর প্রভাবে টানা বৃষ্টিতে এবার দেশে গেলো বছরের তুলনায় দশ মিলিয়ন কেজি চা কম উত্পাদন হয়েছে। অর্থাত্ ২০১৬ সালে দেশে চা উত্পাদন হয়েছিল ৮৫ মিলিয়ন কেজি। যা ছিল দেশে চা শিল্পের ১৬২ বছরের ইতিহাস। কিন্তু ২০১৭ সালে চায়ের উত্পাদন কমে গিয়ে ৭৫ মিলিয়ন কেজি উত্পাদন হয়। অতিবৃষ্টি ও রোদের অভাবে চায়ের কুঁড়ি ঐ ভাবে বাড়েনি।

চা বোর্ডের তথ্যমতে, দেশের ১৬২টি চা বাগানের মধ্যে সিলেটে রয়েছে ১৩৮টি। ১ লাখ ২০ হাজার হেক্টরের মধ্যে চা চাষ হয় ৫৪ হাজার হেক্টরে। মার্চ থেকে উত্পাদন মৌসুম শুরু হয় ডিসেম্বর পর্যন্ত অব্যাহত থাকে। গত বছর রেকর্ড পরিমাণ চা উত্পাদন হলেও এবার মৌসুমের শুরুতে অতিবৃষ্টির কারণে উত্পাদন হ্রাস পায়।

বাগান সংশ্লিষ্টরা জানান এবার গত বছরের তুলনায় সিলেটের চা-বাগান এলাকায় ১ হাজার ২শ মিটার বেশি বৃষ্টিপাত হয়েছে। অন্যান্য বছর মার্চ-এপ্রিলে স্বাভাবিক বৃষ্টি হয়। মার্চের বৃষ্টিকে বাগান এলাকায় আশির্বাদ বলে মনে করা হয়। কিন্তু তা না হয়ে মে থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এক নাগারে বৃষ্টি হয়। গেলো চা-উত্পাদন মৌসুমে বাগান এলাকায় মোট ৩ হাজার ৭ শ মি. মিটার বৃষ্টি হয়। এর ফলে বাগান পরিচর্যা ব্যাহত হয়। যথাযথ সার ব্যবহার করা যায়নি। সিলেটের অদূরে খান চা-বাগানে এবার উত্পাদন হয়েছে ৪ লাখ ৬৭ হাজার কেজি। এর আগের বছর সেখানে উত্পাদন হয় ৪ লাখ ৯৮ হাজার কেজি। জাফলং চা বাগানে যেখানে আগের বছর ৪ লাখ ৬ হাজার কেজি উত্পাদন হয়েছিল, সেখানে ২০১৭ সালে ৩ লাখ ৬৫ হাজার কেজি চা-উত্পাদন হয়। সিলেটের একাধিক বাগান ব্যবস্থাপক জানান, অতি বৃষ্টির কারণে অনেক চা গাছ ধ্বংস হয়ে গেছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের আরও খবর
2019 All rights reserved by |Dainik Donet Bangladesh| Design and Developed by- News 52 Bangla Team.
Theme Customized BY News52Bamg;a