1. [email protected] : 100010010 :
  2. [email protected] : admin :
  3. [email protected] : Helal Uddin : Helal Uddin
  4. [email protected] : Nadikur Rahman : Nadikur Rahman
  5. [email protected] : Priyanka Islam : Priyanka Islam
  6. [email protected] : sadmin :
সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৭:২৮ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ সংবাদ :
কাপ্তাইয়ে তিন বছরের সাজাপ্রাপ্ত আসামি গ্রেপ্তার কাপ্তাইয়ে অসুস্থ সাংবাদিকের পাশে তথ্য অফিসার মাদারীপুর সদর উপজেলার (ইউএনও) সাইফুদ্দিন গিয়াস এর বাবার মৃত্যুতে জেলা প্রশাসকের শোক খুলনার বেহাল সড়কের সংস্কারের দাবিতে মানববন্ধন আখাউড়ায় ক্যান্সার রোগীর চিকিৎসায় প্রবাসীর আর্থিক সহায়তা হরিনাকুন্ডুর মামুন অর রশিদ গাছ লাগিয়ে সাড়া ফেলেন আখাউড়া উপজেলার ভিতরে প্রায় ১০০ টি মন্ডপে বিশ্বকর্মা পূজা হরিনাকুন্ডু শিক্ষক কর্মচারী ফোরামের দোয়া, স্মরণসভা ও আর্থিক অনুদান প্রদান আখাউড়া রেলওয়ে স্টেশনে আসন সঙ্কট, তবুও যাত্রীদের ভ্রমণ থেমে নেই আখাউড়ায় গর্ভবতী নারীদের স্বাস্থ্য সেবা প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত

গোপালগঞ্জে ভোগান্তির আরেক নাম চাপাইল ব্রীজ

প্রতিবেদকের নাম :
  • আপডেটের সময় : সোমবার, ২২ জানুয়ারী, ২০১৮

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি: গোপালগঞ্জে বর্তমানে ভোগান্তির আরেক নাম চাপাইল ব্রীজ। সম্প্রতি ব্রীজের পশ্চিম প্রান্তে লেগুনা মালিক ড্রাইভার ও অটোরিক্সা মালিক ড্রাইভারদের মধ্যে মারামারি সংগঠিত হয়। এর আগে প্রশাসনের নির্দেশ মোতাবেক অনেক দিন যাবত চাপাইল ব্রীজের ওপারের কোন অটোরিক্সা কে গোপালগঞ্জ শহরে প্রবেশ করতে দেওয়া হয়নী। সে পরিপ্রেক্ষিতে ওপারের অটোরিক্সা ড্রাইভাররা কোন লেগুনা কেও ওপারে যেতে দেয় না। এমন ঘটনাকে কেন্দ্র করে সম্প্রতি মারামারির ঘটনা ঘটে। মারামারির ঘটনাটি বর্তমানে গোপালগঞ্জ ও নড়াইল দু’জেলার মধ্যে প্রতিহিংসা পরায়ন হয়ে উঠেছে। বর্তমানে ব্রীজের দুই প্রান্তে থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। চাপাইল ব্রীজের উপর দিয়ে কোন লেগুনা ও অটোরিক্সা চলাচল করতে পারছে না।
বর্তমানে বয়স্ক মানুষ গুলির পায়ে হেটে ব্রীজ পার হওয়া চরম কষ্টের। এ নিয়ে জনগনের মধ্যে চরম ভোগান্তি ও অসন্তোষ বিরাজ করছে। গোপালগঞ্জ ও নড়াইল এ দু’জেলার প্রশাসনের আশানুরুপ কোন পদক্ষেপ চোখে পড়ার মত নয়। দু’জেলার লোকজন ব্রীজের দু’প্রান্তে লাঠিসোটা নিয়ে প্রস্তুত রয়েছে। যে কোন সময় অনেক বড় ধরনের সংঘর্ষের কারনে দুর্ঘটনা ঘটার সম্ভাবনা রয়েছে। দু’জেলার পুলিশ প্রশাসনের উপস্থিতি ও হস্তক্ষেপের কারনে আপাতত চাপাইল ব্রীজের দুইপার কোন প্রকার দাঙ্গা বিহীন অবস্থায় আছে। পুলিশ প্রশাসন সরে গেলেই বড় ধরনের মারামারি ঘটনা ঘটতে পারে বলে মতামত প্রকাশ করেছে স্থানীয়রা। এ অবস্থায় জনগনের ভোগান্তি লাঘবে দ্রুত প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছে এলাকাবাসী।
এলাকার আর্থ সামজিক অবস্থার উন্নয়নের পাশাপাশি মানব সম্পদ উন্নয়ন ও জাতীয় অর্থনীতিতে এ ব্রীজ ভূমিকা রাখছে। স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রনালয়ের উপজেলা ও ইউনিয়ন সড়কে দীর্ঘ সেতু নির্মান প্রকল্পের আওতায় ৫৭ কোটি ২৫ লক্ষ টাকা ব্যায়ে গোপালগঞ্জ এলজিইডি শহরের উপকন্ঠে মধুমতি নদীর উপর ৫৮৮.৬৫ মিটার দৈর্ঘ্য ও ৯.৬ মিটার প্রস্ত চাপাইল সেতু নির্মান করে। যা গত বছর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্স মাধ্যমে উদ্ভোধন করেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর
2019 All rights reserved by |Dainik Donet Bangladesh| Design and Developed by- News 52 Bangla Team.
Theme Customized BY News52Bamg;a