1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : News 52 Bangla : Nurul Huda News 52 Bangla
শুক্রবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২২, ০৪:৫৬ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ সংবাদ :
কাপ্তাইয়ে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস ও বিজয় দিবস উদযাপন লক্ষ্যে প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত খুলনা মৎস্য অধিদপ্তরের মাসিক সমন্বয় সভা বেনাপোলে মদ গাঁজা ফেনসিডিলসহ আটক ৩ কাপ্তাইয়ে মাদক আস্থানা পুলিশ ভেঙ্গে দেওয়ায় মাদক সেবীর হামলায় আহত-২ কাপ্তাই বিউবো মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে জিপিএ-৫ পেয়েছ ২২ জন, পাশের হার ৯৬.৫৯% আখাউড়ায় ধর্ষণ মামলার আসামী গ্রেফতার এবার বৃষ্টিপাত কম হওয়ার দরুণ কাপ্তাই লেকে পানি স্বল্পতায় বিদ্যুৎ উৎপাদন সর্বনিন্মে সাতক্ষীরার শীর্ষ চোরাকারবারী ৩০ বোতল ফেন্সিডিল সহ আটক কাপ্তাই আপস্ট্রিম জেটিঘাট কচুরিপানা যানজট অপসরণে ৪০ দিনের কর্মসূচি উদ্বোধন কাপ্তাই উপজেলা বিএনপির ৩ নেতাকে মিথ্যা মামলা ও গ্রেপ্তারের নিন্দা ও প্রতিবাদ

ভাগ্যলিপি: ইসলাম কী বলে

প্রতিবেদকের নাম :
  • আপডেটের সময় : বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী, ২০১৮

একজন মুসলমানকে যেসব মৌলিক বিষয়ের ওপর ইমান আনতে হয় এর মধ্যে তাকদির একটি। তাকদির বা ভাগ্যলিপি সম্পর্কে ইসলামে নানা বিতর্ক আছে। ‘ভালো-মন্দ সব আল্লাহ করেন’ এই বিশ্বাস একজন মুসলমানকে রাখতে হয়। তবে তাকদিরের ব্যাখ্যা নিয়ে ইসলামি চিন্তাবিদদের মধ্যে বিতর্ক আছে। ভালো-মন্দ সবই আল্লাহর কাছ থেকে আসে-এ বিষয়টি আমাদের মেনে নেয়া একান্ত কর্তব্য। আল্লাহ বলেন, যে ব্যক্তি আল্লাহর ওপর ভরসা করে তার জন্য তিনিই যথেষ্ট।

তাকদিরের ব্যাখ্যা বিভিন্ন হাদিসে উল্লেখ আছে। এক সাহাবি রাসুলকে (সা.) জিজ্ঞেস করলেন, আমরা আমাদের রোগব্যাধির চিকিৎসার জন্য যে দোয়া, তাবিজ ও ওষুধ ব্যবহার করি এবং বিপদ মুসিবত থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য যে সতর্কতামূলক ব্যবস্থাদি গ্রহণ করি, এগুলো কি আল্লাহর তাকদিরকে (নির্ধারিত ব্যবস্থা) ঠেকাতে পারে? তিনি জবাবে বললেন, এসব ব্যবস্থাও তো আল্লাহর তাকদিরেরই অন্তর্ভুক্ত (তিরমিজি)। হজরত আলি (রা.) থেকে বর্ণিত, রাসুল (সা.) বলেছেন : তোমাদের প্রত্যেকের দোজখ ও বেহেশত নির্ধারিত হয়ে আছে। লোকেরা বলল, হে রাসুল, তাহলে আমরা আমাদের নিজ নিজ নির্ধারিত ভাগ্যের ওপর নির্ভর করে কাজ কর্ম ছেড়ে দিই না কেন? রাসুল (সা.) বললেন: না, কাজ করে যাও। কেননা যাকে যে কাজের জন্য সৃষ্টি করা হয়েছে তার জন্য সেই কাজই সহজ করে দেয়া হয়। যে ব্যক্তি সৌভাগ্যশালী, তাকে সৌভাগ্যজনক ও বেহেশতে যাওয়ার উপযোগী কাজ করার সামর্থ্য দান করা হয়। আর যে ব্যক্তি হতভাগা ও জাহান্নামি, তাকে জাহান্নামে যাওয়ার উপযোগী কাজ করার সামর্থ্য দেয়া হয়।

পূর্ব নির্ধারিত ব্যবস্থার নামই তাকদির বা অদৃষ্ট। এ ব্যাপারে কোরান হাদিসে বিস্তারিত উল্লেখ আছে। তাকদির নিয়ে অহেতুক বিতর্ক বা বিভ্রান্তিতে ভোগার কোনো কারণ নেই। মুমিনের দায়িত্ব হলো কাজ করে যাওয়া। সফলতা-ব্যর্থতা নির্ণয়ের দায়িত্ব আল্লাহর। কে সফল হবে আর কে ব্যর্থ হবে সেটা মহান স ষ্টা আগে থেকেই জ্ঞাত। তবে সেটা তার স ষ্টাসুলভ জ্ঞান। এই জানার দ্বারা মানুষের কৃতকর্মের মধ্যে কোনে হেরফের হবে না। দুনিয়াতে যে যেমন আচরণ করার কথা তেমনই করবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের আরও খবর
2019 All rights reserved by |Dainik Donet Bangladesh| Design and Developed by- News 52 Bangla Team.
Theme Customized BY News52Bamg;a