1. [email protected] : 100010010 :
  2. [email protected] : admin :
  3. [email protected] : Helal Uddin : Helal Uddin
  4. [email protected] : Nadikur Rahman : Nadikur Rahman
  5. [email protected] : Priyanka Islam : Priyanka Islam
  6. [email protected] : sadmin :
সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:১৮ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ সংবাদ :
শার্শায় শিশু ও নারী উন্নয়নে সচেতনতামূলক ওরিয়েন্টেশন কর্মশালা বেনাপোল বন্দরে এক কোটি ২০ লাখ টাকার কেমিক্যাল আটক চন্দ্রঘোনা থানা সিএনজি ভর্তি মদসহ পাচারকারী আটক কাপ্তাই ভি.ভি.এইছ ছাত্রাবাসের ৫৫তম নবীন-বরণ অনুষ্ঠিত আও: লীগ মাদারীপুর উপজেলাধীন শিরখাড়া ইউনিয়ন শাখার ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন আখাউড়া অন্তঃনগর ট্রেনের আসন বৃদ্ধির আশ্বাস দিলেন রেলমন্ত্রী কাপ্তাইয়ে এএনআর বাগান পরিদর্শনে- প্রধান বন সংরক্ষক কাপ্তাই স মিল এলাকায় দোকান ঘরে চুরি দেখে মালিক জ্ঞান হারিয়ে আহত শতায়ু ব্যায়াম সংঘ লেক ভিউ মাদারীপুরের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠান সম্পন্ন কাপ্তাই এলপিসি শ্রমিক-কর্মচারী ইউনিয়নের দ্বি-বার্ষিক নির্বাচনে ব্যাপক প্রচার-প্রচারণা

রিজার্ভ চুরি নিয়ে কোনো কথা বলা যাবে না: অর্থমন্ত্রী

প্রতিবেদকের নাম :
  • আপডেটের সময় : মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

বাংলাদেশ ব্যাংকের রির্জাভ চুরি সংক্রান্ত মামলা শেষ না হওয়া পর্যন্ত কোনো কথা বলা যাবে না বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

মঙ্গলবার রাষ্ট্রায়ত্ত চারটি ব্যাংকের চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালকদের (এমডি) সঙ্গে বৈঠক শেষে তিনি এ কথা জানান।

রাজধানীর আগারগাঁও পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের এনইসি সম্মেলন কক্ষে অর্থমন্ত্রীর সভাপতিত্বে ওই বৈঠক হয়। সেখানে সোনালী ব্যাংক, অগ্রণী ব্যাংক, রূপালী ব্যাংক ও জনতা ব্যাংকের চেয়ারম্যান ও এমডিরা উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ ব্যাংকের রির্জাভ চুরি তদন্ত নিয়ে অগ্রগতি আছে কিনা- সাংবাদিকদের এ প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, এ সংক্রান্ত একটি মামলা চলমান আছে। মামলা শেষ না হওয়া পর্যন্ত কোনো কথা বলা যাবে না।

অর্থমন্ত্রী বলেন, ঋণ ইস্যুতে ব্যাংকের চেয়ারম্যান বা পরিচালককে ব্যক্তিগত গ্যারান্টি দিতে হবে। আর ঋণ গ্রহীতার কাছ থেকে জামানত বা মর্টগেজ সঠিকভাবে রেখেই ঋণ দিতে হবে। যাতে ঋণের বিপরীতে নিশ্চয়তা থাকে। এ সব বিধান অন্তর্ভুক্ত করতে আইনের সংশোধন করা হবে।

তিনি বলেন, আইনি প্রক্রিয়ায় এসব উদ্যোগ এতটাই শক্তিশালী করা হবে- যাতে খেলাপি হলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া যায়। আর এ দু’টি বিষয় নিশ্চিত করতে পারলে কোনোভাবেই খেলাপি ঋণ বাড়বে না।

অর্থমন্ত্রী বলেন, খেলাপি ঋণগুলো পর্যালোচনা করে দেখা গেছে কিছু আইনি প্রক্রিয়ার দুর্বলতা ছিল। এসব দুর্বল দিকগুলো এখন দূর করা হবে। পাশাপাশি খেলাপি ঋণের সঙ্গে জড়িতদের শাস্তির আওতায় আনা হবে। ক্রেতা দায়ী থাকলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। এর সঙ্গে কোনো ব্যাংক কর্মকর্তা জড়িত থাকলেও ব্যবস্থা নেয়া হবে। বিদ্যমান আইনে তাদের শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া যায়। ফলে এর থেকে রক্ষা পাবে না। এ জন্য বলছি খেলাপি ঋণ বাড়বে না।

অর্থমন্ত্রী আরও বলেন, যারা ভালো ঋণ গ্রহীতা তাদের আমরা আবার ঋণ দিব। আর যারা ভালো নয় তাদের সম্পর্কে বলা আছে তাদের ঋণ দেয়া হবে না। খারাপ ঋণ গ্রহীতাদের নিয়ে ভাবনার দরকার নেই।

জানা গেছে, ওই বৈঠকে রাষ্ট্রায়ত্ত চারটি ব্যাংক থেকে তাদের ভবিষ্যৎ কর্ম-পরিকল্পনা দাখিল করেছে। ব্যাংকগুলো আরও কার্যকর করতে বিভিন্ন লক্ষ্য নির্ধারণ করেই কর্ম-পরিকল্পনা প্রণয়ন করেছে। এতে ব্যাংকের মুনাফা আরও বৃদ্ধির পরিকল্পনা রয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর
2019 All rights reserved by |Dainik Donet Bangladesh| Design and Developed by- News 52 Bangla Team.
Theme Customized BY News52Bamg;a