1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : News 52 Bangla : Nurul Huda News 52 Bangla
বৃহস্পতিবার, ১৯ মে ২০২২, ০৫:৪৬ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ সংবাদ :
কাপ্তাইয়ে বীর মুক্তিযোদ্ধা রেফায়েত উল্লাহ (৯০) রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন কাপ্তাইয়ে আগর বাগান মালিক সমিতির বার্ষিক সভা ও নতুন কমিটি গঠন আখাউড়ায় শিয়ালের মাংস বিক্রি,জীবিত শিয়াল উদ্ধার কাপ্তাইয়ে জাতীয় শিশু পুরস্কার প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত চন্দ্রঘোনা ইউপি নির্বাচন মনোনয়নপত্র জমা দিলেন আ’লীগ প্রার্থী মিলন কাপ্তাইয়ে অনুর্ধ্ব- ১৭ বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা ফুটবল টুর্নামেন্টের উদ্বোধন ঝিকরগাছায় লেবু বাগান থেকে নারীর লাশ উদ্ধার চন্দ্রঘোনা ইউপি নির্বাচনে স্বতন্ত্র পদে মনোনয়ন পত্র জমা দিলেন বিপ্লব মারমা আখাউড়া পৌর মেয়র ও উপজেলা চেয়ারম্যানের সাময়িক ভূল বুঝাবুঝির অবসান কাপ্তাইয়ের নৃত্যানুষ্ঠান ” নুপুর নিক্কণ “

মাদারীপুরে বিষ খাইয়ে মেরে ফেলা হলো প্রায় বিলুপ্ত প্রজাতির ১১টি বানর

প্রতিবেদকের নাম :
  • আপডেটের সময় : বুধবার, ৬ মে, ২০২০

হাকিম গোলাম আজম ইরাদ,মাদারীপুর সংবাদদাতা :

মাদারীপুর পৌরসভার চরমুগুরিয়া ৯নং ওয়ার্ড এলাকায় ১১টি বিলুপ্ত প্রায় প্রজাতির বানরকে বিষ খাইয়ে মেরে ফেলেছে দুর্বৃত্তরা। ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার বিকেলে। এই ঘটনায় এলাকাবাসী ক্ষুব্ধ ।
স্থানীয়রা জানান, মাদারীপুর শহরের এই বানরগুলো শত বছর ধরে চরমুগরিয়া বন্দরের মানুষের পাশাপাশি বসবাস করে আসছে। মঙ্গলবার বিকালে দুর্বৃত্তরা কয়েকটি বানরকে মেরে ফেলার উদ্দেশ্যে বিষ খাইয়ে দেয়। এতে ১০টি বানর মারা গেছে। এছাড়াও একটি বানর অর্ধমৃত্য অবস্থায় পড়ে আছে। মৃত্যু ১০টি বানরকে স্থানীয়রা মাটি চাপা দিয়ে রাখে।
একাধিক ব্যক্তি জানান, খাদ্য সংকটের কারনে বানরগুলো বাসা বাড়িতে বিভিন্ন সময় হানা দিতো। তবে একারনে কেউ কখনও বানর মারেনি।
স্থানীয় সূত্র জানায়, আড়িয়াল খাঁ নদীবেষ্টিত মাদারীপুরের চরমুগরিয়া অঞ্চল বনজ ও ফলদ গাছে পূর্ণ ছিল। মুক্তিযুদ্ধের আগে এ বনে ১০ হাজারের মতো বানর ছিল। তখন জঙ্গল ও শত শত গাছ থাকায় বানরগুলোর বিচারণ ছিল চরমুগরিয়ার এলাকাজুড়ে। জেলা বন বিভাগের তথ্য মতে, চরমুগরিয়ায় এখনও আড়াই হাজারের মতো বানর আছে।
এ ব্যাপারে মাদারীপুর উন্নয়ন সংগ্রম পরিষদের আহবায়ক মাসুদ পারভেজ বলেন, এটা খুবই অমানবিক। বানরগুলো মাদারীপুরের ঐতিহ্য। শত বছর ধরে এই বানরগুলো মানুষের প্রতিবেশীর মতই বসবাস করে আসছে। কেউ কখন বানর
মারেনি। কিছু অমানুষ এই বানরগুলোকে মেরে ফেলেছে। আমরা এর বিচার চাই। এব্যাপারে জেলা বন বিভাগের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা তাপস কুমার গুপ্তকে একাধিক বার ফোন দিলেও ফোন রিসিভ করেননি।
উল্লেখ্য, বানরের জন্য মাদারীপুর সদর উপজেলার কুমার নদের তীরে নয়াচর এলাকায় ১৮ একর জায়গাজুড়ে ইকোপার্ক নির্মাণ করা হলেও বানরগুলো আজও সেখানে নেওয়া সম্ভব হয়নি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের আরও খবর
2019 All rights reserved by |Dainik Donet Bangladesh| Design and Developed by- News 52 Bangla Team.
Theme Customized BY News52Bamg;a