1. te@ea.st : 100010010 :
  2. rajubdnews@gmail.com : admin :
  3. ahamedraju44@gmail.com : Helal Uddin : Helal Uddin
  4. nrbijoy03@gmail.com : Nadikur Rahman : Nadikur Rahman
  5. shiningpiu@gmail.com : Priyanka Islam : Priyanka Islam
  6. admin85@gmail.com : sadmin :
শুক্রবার, ১৮ জুন ২০২১, ১২:৩৪ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ সংবাদ :
মেহেরপুরে করোনায় দুজনের মৃত্যু কাপ্তাইয়ের রাইখালীতে যৌথ বাহিনীর অভিযানে অস্ত্রসহ ১ জন আটক ঝিনাইদহে করোনা সংক্রমণ রোধে জেলা প্রশাসনের বিধিনিষেধ জারি হে কাপ্তাই তুমি রয়েছ মনের গহীনে নিরবে নিভৃতে” স্মৃতির অ্যালবামে ভান্ডারিয়ায় আনারশ মার্কার নির্বাচনী কার্যালয়ে দুর্বৃত্তের আগুন মরণব্যাধি ক্যান্সারে আক্রান্ত নাজমা কে বাঁচাতে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিন যশোরের শার্শায় ২৫টি গৃহহীন পরিবার পেলো নতুন ঠিকানা নিয়তির মুচকি হাসি—-মৌসুমী জামান কাপ্তাইয়ে স্বাস্থ্য শিক্ষা ব্যুরোর করোনা সচেতনতামূলক সড়ক প্রচারণা ছাত্রনেতা বিপ্লবের মৃত্যুতে কাউখালীতে বিভিন্ন মহলের শোক প্রকাশ

পল্লবীর ইষ্টার্ন হাউজিংয়ে বহুতল ভবন নির্মাণের অনুমতি না দেওয়ায় উন্নয়ন ব্যহত

প্রতিবেদকের নাম :
  • আপডেটের সময় : রবিবার, ৩০ মে, ২০২১
এফ এম আনসারী  :
রাজধানীর পল্লবীর ইষ্টার্ণ হাউজিং লিমিটেডের একটি বৃহৎ  আবাসন প্রকল্প পল্লবী ২য় পর্ব আবাসিক এলাকার  পাশে বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর  রাডার কেন্দ্র স্থাপিত হওয়ায় রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক) ২০০৭ সাল থেকে অত্র এলাকায় কোন ভবনের নির্মাণ অনুমোদন চারতলার উপরে দিচ্ছে না । এর ফলে কোন প্লট ও ডেভেলপার কোম্পানীর মালিক  ওই এলাকায় বিনিয়োগ করছে না। ফলে এ এলাকা আগের মত বর্তমানে চরমভাবে অবহেলিত অবস্থায় আছে। কোন ধরনের উন্নয়ন কর্মকান্ড নেই এই এলাকায়।
সূত্র জানায়, ২০০৭ সালের আগে রাজউক কর্তৃপক্ষ এই এলাকায় অসংখ্য ভবনের নির্মাণ অনুমোদন ছয়, সাত এমনকি আটতলা  পর্যন্ত দিয়েছে। যেসব ভবন আজ দন্ডায়মান। যেসব ভবনের জন্য রাডার কেন্দ্রের টাওয়ার কিংবা বিমানের মধ্যেকার সংযোগ স্থাপনে কোন ধরনের সমস্যা হয়নি। সেসময় রাডারের টাওয়ার যে অবস্থানে ছিল আজও ঠিক তেমনই আছে। এক চুলও এদিক ওদিক  হয়নি।
বাংলাদেশ  বিমান বাহিনী কর্তৃক স্থাপিত ওই রাডার কেন্দ্রের টাওয়ারের উচ্চতা ৪৫ ফিট থাকার কারনে বিমান কর্তৃপক্ষ ২০০৬ সালে রাজউক কর্তৃপক্ষকে পল্লবী ২য় পর্বে ভবন নির্মাণে ৪০ ফিট  উচ্চতা মধ্যে রেখে অনুমোদন দিতে অনুরোধ জানায়। এরপর থেকে রাজউক কর্তৃপক্ষ ওই এলাকায় কোন ভবনের অনুমোদন চারতলার উপরে দিচ্ছে না। অত্র এলাকার সকল ভুক্তভোগী প্লট ও ডেভেলপার কোম্পানীর মালিক একত্রিত হয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিষয়টি সুরাহা করার জন্য চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু কিছুতেই তারা বিষয়টি সুরাহা করতে পারছে না। এমতাবস্থায় অত্র এলাকার জনদরদী নেতা ঢাকা- ১৬ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য ও প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের স্থায়ী কমিটির সদস্য  আলহাজ্ব ইলিয়াস উদ্দিন মোল্লাহ ২০১৯ সালের ৩১শে জুলাই  প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের স্থায়ী কমিটির ৩য় সভায় বিষয়টি উপস্থাপন করেন। সেই সভায় রাডারের টাওয়ার উঁচু করার সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়। সেই সভায় তিন বাহিনীর প্রধানরা উপস্থিত ছিলেন।  বর্তমানে রাডার কেন্দ্রের উচ্চতা ৯০ ফিটে আছে এবং ফ্রান্সের কারিগরি সহায়তায় আরও একটি ১৫০ ফিট উচ্চতার রাডার টাওয়ারের নির্মানকাজ চলছে।
সরজমিন গিয়ে জানা যায়, ইষ্টার্ণ হাউজিং কোং লিমিটেডের আবাসন প্রকল্প পল্লবী ২য় পর্ব আবাসিক এলাকা ১৯৮৭ সালে ৩৫০ একর জমির উপর শুরু  হয়। এরপর প্রকল্পটি রাজউক থেকে বেশ কয়েকবার অনুমোদন পাওয়ার পর সর্বশেষ অনুমোদন পায় ২০১৫ সালে। এই অনুমোদনের শর্ত হল অত্র আবাসিক এলাকার অভ্যান্তরে রাস্তার জন্য ৭৪ ও অন্যান্য সুযোগ সুবিধার জন্য ২৮ একর জমি দিতে হবে। কিন্তু ইষ্টার্ন হাউজিং কর্তৃপক্ষ এ শর্ত অনুযায়ী কাজ করছে না বলে অভ্যন্তরিন রাস্তা ও উন্নয়নকাজ বিলম্বিত হচ্ছে। জানা যায়, ইষ্টার্ণ হাউজিং কর্তৃপক্ষ এ পর্যন্ত রাস্তার জন্য ১৫ একর জায়গা অফিসিয়ালী ডিএনসিসিকে হস্তান্তর করেছে। বাকীটা কবে দেওয়া হবে তা জানা নেই। এরপরেও ডিএনসিসি ২০১৬ সালে চারশত কোটি টাকা রাস্তা ও উন্নয়নকাজ করার জন্য বরাদ্দ দিয়েছিল। যা শেষ হওয়ার কথা ছিল ২০২০ সালের ডিসেম্বর মাসে। কিন্তু ইষ্টার্ন হাউজিং কর্তৃপক্ষের খামখেয়ালিপনায় সেটা হয়নি। বর্তমানে ক্ষতিগ্রস্ত বাড়ি মালিকদের সংগঠন বাড়ি ও ফ্ল্যাট মালিক সমিতি ও ঢাকা- ১৬ আসনের মাননীয় সংসদ সদস আলহাজ্ব ইলিয়াস উদ্দিন মোল্লাহ’র আন্তরিক প্রচেষ্টায় ৯৭৮ কোটি টাকার একটি উন্নয়ন প্রকল্প ডিএনসিসির পক্ষ থেকে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের বিবেচনাধীন আছে।
সরেজমিন আরো জানা যায়, এই এলাকায় দীর্ঘ ৩৪ বছর যাবৎ কোন রাস্তা পিচ দিয়ে ঢালাই করা হয়নি। পুরো এলাকার রাস্তাঘাট খানাখন্দে ভরা। সেইসাথে  পয়নিস্কাশন, ড্রেনেজ, স্কুল-কলেজ, মসজিদ-মাদ্রাসা ও চিত্ত- বিনোদনের স্থান সংকুলনসহ নানা সমস্যায় জর্জড়িত। পুরো এলাকার রাস্তাঘাট শুষ্ক মৌসুমে যেমন ধুলার রাজ্যে পরিণত হয় তেমনি বর্ষাকালে থাকে কাঁদাজলে ভরপুর। লক্কর ঝক্কর মার্কা এসব রাস্তা দিয়ে অসুস্থ কাউকে নিয়ে চলাচল করা খুবই কষ্টকর। ঢাকার মত একটা জায়গায় এমন রাস্তা দেখলে মনে হয় যেন কোন অজ পাড়াগাঁয়ের রাস্তা। এসব ঝুঁকিপূর্ন  রাস্তা দিয়ে প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ চলাফেরা করছে।
এ ব্যপারে পল্লবী ২য় পর্ব বাড়ি ও ফ্ল্যাট মালিক সমিতির সভাপতি ক্যাপ্টেন মোঃ আবুল কাশেম (অব.) বলেন, জাতীয় বোটানিক্যল গার্ডেনের উত্তরে ও ঢাকা প্রতিরক্ষা বাঁধের পূর্ব পাশে অবস্থিত বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর রাডার কেন্দ্রের টাওয়ারের উচ্চতা ৪৫ ফিট হওয়ায় পল্লবী ২য় পর্ব আবাসিক এলাকায় ৪০ ফিট উচ্চতার বেশি কোন ভবনের অনুমোদন দিচ্ছে না রাজউক কর্তৃপক্ষ। এতে অত্র এলাকার উন্নয়ন চরমভাবে ব্যহত হচ্ছে।
ওই এলাকায় দীর্ঘদিন ধরে ব্যবসা করা  পাটোয়ারী প্রোপার্টিজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফেরদৌস আলম পাটোয়ারী বুলবুল বলেন, রাজউক এই এলাকায় বহুতল ভবন নির্মাণের অনুমোদন না দিলে কোন ডেভেলপার কোম্পানী এখানে আশানুরুপ বিনিয়োগ করবে না। আর বিনিয়োগ না করলে এই এলাকা কখনই উন্নয়ন হবে না। এ এলাকা দীর্ঘদিন যাবৎ অবহেলিত ছিল আজও আছে এবং ভবিষ্যতে কি হবে জানি না। তবে আমি এ এলাকার দীর্ঘদিন ধরে মানুষের ভালোবাসার টানে ব্যবসা করছি। কোন লাভ লসের কথা চিন্তা করে নয়।
এ ব্যপারে ঢাকা- ১৬ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য ও প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের স্থায়ী কমিটির সদস্য  আলহাজ্ব ইলিয়াস উদ্দিন মোল্লাহ বলেন, বিষয়টি নিয়ে স্থায়ী কমিটির বৈঠকে উপস্থাপন করলে বৈঠকে উপস্থিতদের সিদ্ধান্ত মোতাবেক   রাডারের উচ্চতা ৪৫ ফিটের স্থলে ৯০ ফিট করার সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়। এই সিদ্ধান্তের পর উক্ত রাডারের উচ্চতা বৃদ্ধির কাজ চলছে। আশা করছি রাজউক এবার তাদের ওই নিষেধাজ্ঞা তুলে নেবে।
ওই এলাকার সকল প্লট ও ডেভেলপার কোম্পানীর মালিকদের একটাই প্রাণের দাবী, রাজউক কর্তৃপক্ষ যেন, পূর্বের মত একইভাবে ভবন নির্মাণের অনুমোদন দেয়।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর
2019 All rights reserved by |Dainik Donet Bangladesh| Design and Developed by- News 52 Bangla Team.
Theme Customized BY News52Bamg;a