1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : News 52 Bangla : Nurul Huda News 52 Bangla
বৃহস্পতিবার, ২০ জানুয়ারী ২০২২, ০৪:৪৫ অপরাহ্ন
সর্বশেষ সংবাদ :
কেশবপুরে নারী ডাক্তারসহ ৪ জন করোনায় আক্রান্ত কাপ্তাইয়ের দূর্গম হরিনছড়ায় ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ কাপ্তাইয়ের দূর্গম পাংখোয়া পাড়ায় প্রথম কোন ইউএনও সরকারি কর্মকান্ডে অংশগ্রহণ ঝিনাইদহে আগ্নেয়াস্ত্র ও গুলিসহ এক সন্ত্রাসী গ্রেফতার ডুমুরিয়া থানা পুলিশের অভিযানে ২৭ জন গ্রেফতার ঝিনাইদহে সীমান্ত দিয়ে বেড়েছে অনুপ্রবেশ; নারী-শিশুসহ আটক ৫১ বাবুগঞ্জে পিতার সম্পত্তি ফিরে পেতে এতিম মেয়ের সংবাদ সম্মেলন কাপ্তাইয়ে ৫০ তম শীতকালীন ক্রীড়া প্রতিযোগিতা শুরু চিৎমরম জঙ্গলে বেঁধে রেখে গৃহবধুকে ধর্ষণের অভিযোগ ধর্ষক পলাতক আখাউড়া গ্রাম পুলিশের মাঝে নতুন পোশাক ও সাইকেল বিতরণ

কুমারখালীতে নদী ভাঙ্গন আতঙ্কে শতাধিক পরিবার

প্রতিবেদকের নাম :
  • আপডেটের সময় : শুক্রবার, ১৪ জানুয়ারী, ২০২২

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি।।

কুষ্টিয়া কুমারখালী উপজেলার চাপড়া ইউনিয়নের বহলা গোবিন্দপুর ঈদগাহের পাশে গড়াই নদীর ভাঙ্গনে এলাকাবাসীরা চরম আতঙ্কে দিন পার করছে।

যেকোনো সময় কয়েক শ পরিবারের বাড়িঘর নদীগর্ভে বিলীন হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। গত ১০/ ১৫ দিন আগে নদী ভাঙ্গন বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। এলাকাবাসীরা চরম আতঙ্কে রয়েছে।

এ বিষয়ে চাপড়া ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের নবনির্বাচিত ইউপি সদস্য মোঃ মোতাহার এর সাথে কথা হলে তিনি বলেন, আমার ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডে এই ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে আমরা খুবই বিপদে রয়েছি। আমরা সরকারের কাছে জোর দাবি জানাচ্ছি যে এই ভাঙ্গনরোধে এখনই ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য তা না হলে আগামী ১০/১৫দিনের ভিতরে এই ভাঙ্গন ভয়াবহ রূপ নিতে পারে।

এই বিষয়ে চাপড়া ইউনিয়নের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান এনামুল হক মনজুর সাথে কথা হলে তিনি বলেন, আমি গতকাল ঘটনাস্থলে পরিদর্শন করে এসেছি। এই ভাঙ্গন দেখে আমার মনে হচ্ছে খুব অল্প সময়ের ভিতর ভয়াবহ ক্ষতির সম্ভাবনা রয়েছে। বহলা গোবিন্দপুর এলাকাটা নদীগর্ভে বিলীন হয়ে যাওয়ার সম্ভবনা রয়েছে। আমি ইতিমধ্যে এমপি সাহেবের সাথে কথা বলেছি এবং বিভিন্ন মহলে যোগাযোগ করছি যত দ্রুত সম্ভব এই নদী ভাঙ্গন রোধ করতে হবে। আমি সরকারের কাছে আবেদন করছি যে যত দ্রুত সম্ভব নদী ভাঙ্গন রোধে ব্লক দিয়ে এই এলাকাটা কে বাঁচানোর জন্য এগিয়ে আসবেন। কয়েকশো পরিবার নদীর পাশে বসবাস করে ইতিপূর্বে এই নদীর মধ্যে অনেক বাড়িঘর বিলীন হয়ে গিয়েছে ।পাশে একটা বাধ করা থাকলেও সেটাও এখন অনেক ঝুঁকিতে রয়েছে। আমি পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলতে চাই তারা যদি বিষয়টা দেখে দ্রুততম একটি ব্যবস্থা গ্রহণ করে তাহলে এলাকাবাসীরা অনেক উপকৃত হবে।

এ বিষয়ে এলাকাবাসীদের সাথে কথা হলে তারা বলেন, আমরা খুবই গরীব মানুষ দিন আনি দিন খায় আমাদের জায়গা জমি নাই আমরা খুবই অসহায় আমাদেরকে বাঁচান আমরা কোথায় যাব এই জায়গা টুকু আমাদের শেষ সম্বল,সেই জায়গাটুকু যদি নদীর ভিতরে চলে যায় তাহলে আমরা মা-বাবা,বউ- ছেলেপেলে নিয়ে পথে বসা ছাড়া আর কোন উপায় থাকবেনা ।

সরকারের কাছে আমাদের আকুল আবেদন, আপনারা আমাদেরকে বাঁচান এই নদীতে বাঁধ নির্মাণ করে দেন।

এ বিষয়ে কুষ্টিয়া পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আফসার উদ্দিনের সাথে কথা হলে তিনি বলেন, বিষয়টি আমার নজরে এসেছে যত দ্রুত সম্ভব এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর
2019 All rights reserved by |Dainik Donet Bangladesh| Design and Developed by- News 52 Bangla Team.
Theme Customized BY News52Bamg;a